1. admin@news24hour.net : admin :
বাজারের ওপর সরকারের নিয়ন্ত্রণ নেই: জনতার জোট - নিউজ ২৪ আওয়ার
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:০৮ পূর্বাহ্ন

বাজারের ওপর সরকারের নিয়ন্ত্রণ নেই: জনতার জোট

  • প্রকাশিত : শনিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২৩
  • ১৪ বার পঠিত

দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতি ও সিন্ডিকেট দমনের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে জাতীয় জনতার জোট। এতে বক্তারা বলেন, ব্যবসায়ীরা ইচ্ছেমতো মুনাফা লুটছে। বাজারের ওপর সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি এবং জাতীয় জনতার জোটের চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসাইন। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সার্বজনীন দলের চেয়ারম্যান মো. রাসেল কবির।

দেলোয়ার হোসাইন বলেন, দেশে বিভিন্ন ধরনের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে জনজীবনে অনেক দুর্ভোগ নেমে এসেছে। বাজারের ওপর সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে বিভিন্ন অজুহাতে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়িয়ে সাধারণ মানুষকে বিপদে ফেলছে। একবার যে পণ্যের দাম বাড়ে, তা আর কমে না। সরকারি বিভিন্ন সংস্থাগুলোর এ ব্যাপারে লোক দেখানো কাজ করলেও তা তেমন কার্যকর ভূমিকা না রাখায় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে আসছে না।

তিনি বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বর্তমানে সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যাচ্ছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা টিসিবির ট্রাকের পেছনে এই বিশাল লাইন প্রমাণ করে নিঃসন্দেহে দরিদ্র মানুষরা স্বল্প আয়ে সংসার চালাতে পারছে না এবং মূল্যস্ফীতির সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারছেন না।

জনতার জোটের চেয়ারম্যান বলেন, স্বল্প আয়ের মানুষ থেকে শুরু করে মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষের জীবনধারণ ক্রমশ দুর্বিষহ হয়ে পড়ছে। তাদের কাছে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি যেন নতুন এক অভিশাপের নাম। এভাবে চলতে থাকলে মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা কঠিন থেকে কঠিনতর হয়ে পড়বে।

তিনি বলেন, কোভিড মহামারির ধাক্কায় গত দুই আড়াই বছরের মধ্যে অনেকে চাকরি হারিয়েছেন। আবার মালিকপক্ষ নানান অজুহাতে কর্মীদের বেতন-ভাতা কমিয়ে দিচ্ছে। কোথাও কোথাও কর্মী ছাঁটাই করছে। দ্রব্যমূল্য না কমলে এসব মানুষের অবস্থা কোনো পর্যায়ে গিয়ে দাঁড়াবে, তা অনুমান করা খুব মুশকিল।

তিনি বলেন, দ্রব্যমূল্যের এমন ঊর্ধ্বগতি চলতে থাকলে অতি দ্রুত আমাদের অর্থনীতি মুখ থুবড়ে পড়বে। দেশ আরও একটা শ্রীলংকা দেখবে। সুতরাং সরকারকে এখনই যুগোপযোগী ও কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। দেশ থেকে সব সিন্ডিকেটের কালো হাত ভেঙে চুরমার করে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। বাজার নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি এসব দরিদ্র লোকের জন্য রেশনিং ব্যবস্থা চালু করতে হবে। বর্তমানে অসংখ্য শিক্ষিত বেকার যুবক চাকরির জন্য ঘুরে বেড়াচ্ছে তাদের বেসরকারি খাতে সঠিক নীতিমালা প্রণয়নের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে।

সমাবেশে বক্তারা মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের অসৎ উদ্দেশ্য নস্যাৎ করে বাজার নিয়ন্ত্রণের সামগ্রিক বিষয় সরকারের হাতে নিয়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের ঊর্ধ্বগতি নিম্নগামী করার ব্যবস্থা করতে দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ নিউজ ২৪ আওয়ার
Theme Customized By Shakil IT Park